Breaking News
Home / অন্যান্য / ফিচার / পৃথিবীতে পোকামাকড় কেন প্রয়োজন?

পৃথিবীতে পোকামাকড় কেন প্রয়োজন?

পোকামাকড় হারিয়ে গেলে পৃথিবী হারাবে কফি। আরো কী কী কারণে আমাদের দরকার পোকামাকড় দেখে নিন এই প্রতিবেদন থেকে।

পোকামাকড়েরই এই পৃথিবীআজকের পৃথিবীতে বাস করে প্রায় ১০ লাখ প্রজাতির পোকামাকড়। বিশ্বের সবচেয়ে বেশি বৈচিত্র্যময় প্রাণী তারা। জাতিসংঘের জীববৈচিত্র্য বিষয়ক একটি সাম্প্রতিক গবেষণা বলছে, আগামী কয়েক দশকের মধ্যে মোট প্রজাতির ৪০ শতাংশ হারাতে চলেছি আমরা। এর প্রভাব ঠিক কতটুকু সমস্যা বয়ে আনবে মানুষের স্বাভাবিক জীবনযাপনে, তা অনেকেরই অজানা।

পরাগযোগে ভূমিকাগমের মতো নিত্য প্রয়োজনীয় ফসলের চাষে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পোকামাকড়ের। পরাগযোগের কাজ, যা কিছু পোকা ছাড়া অসম্পূর্ণ, সম্ভব হবে না যদি বিশেষ কিছু প্রজাতির পোকা হারিয়ে যায়। চীনের কিছু অংশে শ্রমিকরা এই পরাগযোগের কাজ করলেও দেখা যাচ্ছে যে এর ফলে ফসলের দাম বাড়ছে কয়েকগুণ।

কফির কাপে কোপশুধু গম নয়, কফির চাষ বা বিশেষ কিছু ফলের উৎপাদনের ক্ষেত্রেও পরাগযোগের গুরুত্ব বিশাল। এছাড়াও পশম ও বেশ কিছু ওষধি গাছের চাষের ক্ষেত্রে গোকার ভূমিকা অপরিহার্য।

সাফাইয়ের দায়িত্বেও পোকা : গুবরে পোকা চিরকালই গল্প-উপন্যাসে হাসিঠাট্টার চরিত্র। কিন্তু এই গুবরে পোকা লুপ্ত হয়ে গেলে চারপাশ হয়ে উঠবে দুর্গন্ধযুক্ত, নোংরা। কারণ এই পোকার মূল কাজই হলো নিজের চারপাশের আবর্জনা পরিষ্কার করা।

খাদ্য শৃঙ্খলে টান : পোকামাকড়ের গুরুত্ব এই পৃথিবীতে শুধু চাষে সাহায্য করা নয়, একাধিক অন্যান্য প্রাণীর দৈনন্দিন খাবারের তালিকাতেও রয়েছে তারা। আচমকা তারা হারিয়ে গেলে রীতিমত অভুক্ত থাকবে বেশ কিছু পশুপাখি।

মানিয়ে নিতে না পারাজলবায়ু পরিবর্তনের কারণে দ্রুত পাল্টাচ্ছে পৃথিবীর আবহাওয়া। কিন্তু তাল মিলিয়ে জীবনধারা পাল্টাতে অক্ষম অনেক পোকামাকড়। ফলে, অবলুপ্তির পথে তারা। শুধু তাই নয়, চাষীদের বাড়ন্ত সার ব্যবহারের ফলেও মারা যাচ্ছে স্বাভাবিকের চেয়ে অনেক বেশি পোকা।

উন্নয়ন বনাম প্রাকৃতিক ভারসাম্যপৃথিবীজুড়ে বাড়ছে মনোকালচার বা একক কৃষির জনপ্রিয়তা। এর সাথে বাড়ছে ক্ষেতে কীটনাশক ও অন্যান্য বিষাক্ত সারের ব্যবহারও। বিশেষজ্ঞরা বলছেন, এই একটি কারণেই ইউরোপে কমছে পোকামাকড়ের সংখ্যা।

কোথায় যাবে তারা? : বিশেষজ্ঞদের মতামত, একক কৃষি ও কীটনাশকের ব্যবহার কমালে বদলাতে পারে চিত্র। পাশাপাশি, ফুল বাগান করার জন্য উৎসাহিত করে তুলতে হবে সাধারণ জনগণকে। এই চিন্তার ভিত্তিতে ইতিমধ্যেই বেশ কিছু হায়গায় শুরু হয়েছে ‘পোকার হোটেল’ নামের এক অভিনব পরিকল্পনা, যা আসলে বাসায় পোকামাকড়ের জন্য নির্দিষ্ট একটি স্থান। এই হোটেলের বিক্রি ক্রমেই বাড়ছে ইউরোপে।

 

Please follow and like us:

Check Also

২৮ বছর ধরে নির্জন ‘গোলাপি দ্বীপে’ একাকী এই বৃদ্ধ!

অনলাইন ডেস্কঃ মওরো মোরান্ডি।৭৮ বছর বয়সী এ বৃদ্ধের নির্জন দ্বীপে একাকী থাকার গল্পটা বেশ চমকপ্রদ। …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

RSS
Follow by Email
Facebook
Twitter

Website Design, Developed & Hosted by ALL IT BD