মাথায় বলের আঘাত, ভয় পাইয়ে দিলেন মালিক!

হ্যামিল্টনে চতুর্থ ওয়ানডেতে পাকিস্তানের ইনিংসে ৩২তম ওভারের দ্বিতীয় বলে সিঙ্গেল নেওয়ার চেষ্টা করেছিলেন শোয়েব মালিক। কিন্তু অন্য প্রান্তের ব্যাটসম্যান মোহাম্মদ হাফিজ তাঁকে ফিরিয়ে দেন। শোয়েব নিজের প্রান্তে ছুটে যাওয়ার সময় কভার অঞ্চল থেকে থ্রো করেন কলিন মানরো। বলটা সরাসরি মালিকের মাথায় আঘাত হানে!

পাকিস্তানের এ অলরাউন্ডারের মাথায় বলটা এত জোরে আঘাত হেনেছে যে ফাইন-লেগ অঞ্চল দিয়ে তা সীমানা-দড়ি পার হয়ে যায়। তখন তাঁর মাথায় হেলমেট না থাকায় ধরাশায়ী হয়ে পড়েছিলেন। কিন্তু দ্রুতই নিজেকে সামলে নিলেও উইকেটে বেশিক্ষণ থাকতে পারেননি। চার বল পরই আউট হয়ে ফিরেছেন। তবে পরে কিছুটা সমস্যায় পড়েছেন।
পাকিস্তান দলের চিকিৎসক ভিবি সিং তাঁর চোট সম্পর্কে বলেন, ‘শোয়েবকে ম্যাচের চিকিৎসক মিলে পরীক্ষা করেছি। আঘাতটা শুরুতে তাকে সেভাবে আলোড়িত না করায় ব্যাটিং চালিয়ে যেতে পেরেছে। আউট হওয়ার পর তাকে পুনরায় পরীক্ষা করা হয় এবং মাথায় আঘাতের লক্ষ্মণ পাওয়া গেছে। সে এখন ভালো আছে এবং বিশ্রাম নিচ্ছে।’
পাকিস্তানের কোচ মিকি আর্থার অবশ্য তাঁর শিষ্যের চোট নিয়ে কিছুটা ভাবনায় পড়েছেন। ম্যাচ-পরবর্তী সংবাদ সম্মেলনে মিকির ভাষ্য, ‘তাঁর মাথায় আঘাত রয়েছে। এই মুহূর্তে ভালো নেই। চূড়ান্ত প্রতিবেদন এখনো পাইনি।’ আউট হয়ে ফেরার পর শোয়েব কিন্তু আর ফিল্ডিংয়ে নামেননি। বোলিংয়ে তাঁর অনুপস্থিতি টের পেয়েছে পাকিস্তান। চতুর্থ ওয়ানডেতেও ৫ উইকেটে হেরেছে আর্থারের শিষ্যরা। শোয়েবের অভাব টের পাওয়ার কথা স্বীকারও করলেন আর্থার, ‘তাঁর ১০ ওভার অফ স্পিন বোলিং আমাদের জন্য ভীষণ দরকার ছিল।’

Please follow and like us:
0